পরীক্ষা ভালো না হওয়ায় হতাশা, পরে নামাজরত অবস্থায় মারা গেল এসএসসি পরীক্ষার্থী

এবার লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে নামাজরত অবস্থায় পড়ে গিয়ে ‘স্ট্রোক করে’ রিদমি আক্তার নামের এক এসএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার ১৫ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় উপজেলার চরফলকন মাতাব্বরহাট এলাকার গফুর উদ্দিন হাজি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এদিকে পরীক্ষা খারাপ হওয়ার হতাশা থেকেই তার মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বজনরা। তার মৃত্যুতে পরিবার ও স্বজনদের মাঝে আহাজারি চলছে। রিদমি গফুর উদ্দিন হাজি বাড়ির ব্যবসায়ী মোজাম্মেল হকের মেয়ে। সে উপজেলার তোয়াহা স্মৃতি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল।

এ বিষয়ে পরিবার ও স্কুলশিক্ষকরা জানান, বেলা ১১টা থেকে এসএসসি পরীক্ষা শুরু হয়। তোয়াহা স্মৃতি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীদের কেন্দ্র ছিল হাজিরহাট মিল্লাত একাডেমি। অন্যান্য সহপাঠীর সঙ্গে রিদমিও বাংলা প্রথম বিষয়ে পরীক্ষায় বসে। তবে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে তার লেখা শেষ হয়নি। এরপর বাড়িতে গিয়ে রিদমি প্রচুর কান্না করে। পরীক্ষা খারাপ হওয়ায় সে খাবারও খায়নি। এদিকে রিদমির চাচা ব্যবসায়ী আমজাদ হোসেন বলেন, পরীক্ষার হলে শেষ সময়ে তার লেখা শেষ হয়নি। তারপরও উত্তরপত্র জমা দিতে হয়েছে। এতে সে হতাশ হয়ে পড়ে। বাড়িতে এসে অনেক কান্নাকাটি করেছে।

দুপুরের খাবারও খায়নি। মাগরিবের নামাজরত অবস্থায় হঠাৎ দাঁড়ানো থেকে পড়ে যায়। তিনি বলেন, পরে স্থানীয় পল্লিচিকিৎসক আনা হয়। চিকিৎসক এসে রিদমির মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এ বিষয়ে তোয়াহা স্মৃতি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জায়েদ বিল্লাহ বলেন, রিদমি ভালো ছাত্রী ছিল। তার মৃত্যু বেদনাদায়ক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.