‘বউ-শাশুড়ির জ্বালায় ম*র*তে বাধ্য হলাম, ছেলের মুখটাও দেখা হলো না’

সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটা থানার বাইগুনি গ্রামে এক যুবক আত্মহত্যা করেছেন। তবে আত্মহত্যার আগে নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন তিনি। মঙ্গলবার ভোরে এ ঘটনা ঘটে। মৃতের নাম মশিয়ার মোড়াল। ২৫ বছর বয়সী মশিয়ার বাইগুনি গ্রামের মিজান মোড়লের ছেলে। তিনি সাতক্ষীরা এক্সপ্রেস পরিবহনের গেটম্যান হিসেবে কাজ করতেন। মশিয়ার নিজের ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘যার টাকা নেই তার কেউ নেই। বউ আর শাশুড়ির জ্বালায় আমি বাধ্য হলাম। ছেলের মুখটা দেখা হলো না’।

স্বজনরা জানান, দীর্ঘদিন ধরে স্ত্রীর সঙ্গে মশিয়ারের কলহ চলছিল। কিছুদিন আগে দুই বছর বয়সী একমাত্র ছেলেকে নিয়ে বাবার বাড়ি পার্শ্ববর্তী তৈলকুপি গ্রামে চলে যান তার স্ত্রী। এরপর স্ত্রী থানায় অভিযোগ দেন। সোমবার বিকেলে মশিয়ারের পুলিশ আসে। একই সঙ্গে মঙ্গলবার তাকে থানায় যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। কিন্তু এর আগেই তিনি ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন।

পাটকেলঘাটা থানার ওসি কাঞ্চন কুমার রায় বলেন, বিষয়টি কেউ জানাননি। তার বাড়িতে কোন এসআই গিয়েছিলেন তা এ মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না। খোঁজ নিয়ে বিষয়টি দেখা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.