‘ওই ম্যাচটা জিতলে শ্রীলঙ্কার জায়গায় বাংলাদেশ থাকতে পারতো’

এবার বাংলাদেশের এশিয়া কাপ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ক্যাচ-ফিল্ডিং মিসের সঙ্গে বোলারদের এলোমেলো বোলিংয়ে শেষ হয়ে যায়। দারুণ ব্যাটিংয়ের পরও এমন হার পোড়াচ্ছে ক্রিকেটপ্রেমীদের। সেই শ্রীলঙ্কা পাকিস্তানকে হারিয়ে শেষ পর্যন্ত চ্যাম্পিয়ন হয়। তাতে এই ক্ষত যেন আরও দগদগে হয়ে ওঠে। এই কষ্ট পাওয়া ব্যক্তির তালিকায় আছেন খোদ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমূল হাসান পাপন। দুবাই স্টেডিয়ামে বসে গতকাল রবিবার রাতে দেখেছেন শ্রীলঙ্কার আধিপত্য। বিসিবি প্রধানের মতে লঙ্কানদের বিপক্ষে ভুলগুলো না করলে তাদের জায়গায় বাংলাদেশও থাকতে পারতো।

গতকাল খেলা শেষে বেরিয়ে যাওয়ার সময় সাংবাদিকদের এমনটাই জানালেন নাজমুল হাসান। অক্টোবরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সাকিবদের কাছে কী প্রত্যাশা জানতে চাইলে বোর্ড সভাপতির উত্তর, ‘বাংলাদেশ দল ভালো। এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কার সাথে ওই ম্যাচটা না জেতার কোনও কারণ ছিল না। আমরা যদি সেই ম্যাচটা জিততাম তাহলে আমাদেরও সেই সুযোগটা (শ্রীলঙ্কার চ্যাম্পিয়ন হওয়া) আসতেও পারতো। বলা তো যায় না। কিন্তু মাঠে কীভাবে পারফর্ম করে ক্রিকেটাররা, সেটার ওপর নির্ভর করে। কিন্তু টিম খুবই ভালো।’ আফগানিস্তানের বিপক্ষে হার দিয়ে শুরু হয়েছিল বাংলাদেশের এশিয়া কাপ। একদিন পরেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ব্যাট হাতে দুর্দান্ত খেলে সাকিবের দল। স্কোরবোর্ডে ১৮৩ পুঁজি করেও হারতে হয় ২ উইকেটে। ব্যাটিংয়ের মতো ফিল্ডিং ভালো হয়নি। এক কুশল মেন্ডিস জীবন পান চার বার। ১ রানে যিনি নিশ্চিত আউট হতেন, তিনি করেন ৬০ রান! এছাড়া বোলিংয়ে প্রথম ২ ওভারে ১৩ রানে ৩ উইকেট নেওয়া ইবাদত পরের ২ ওভারে দেন ৩৯ রান! এখানেই ম্যাচ শেষ হয়ে যায়। বিদায় ঘণ্টা বেজে যায় বাংলাদেশের।

বিসিবি সভাপতি এই ভুলগুলোর কথাই টেনে এনেছেন ফাইনালের পর। তার মতে এ সব ভুল তো করাই যাবে না, উল্টো সুযোগ কাজে লাগাতে হবে। এ কথা বলতে গিয়ে ভারত-পাকিস্তানের উদাহরণ দেন পাপন। পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৮তম ওভারে আসিফ আলীর ক্যাচ মিচ করেন আর্শদীপ সিং। সে সময় শূন্য রানে ছিলেন আসিফ। জীবন পেয়েই তিনি ৮ বলে ১৬ রান করেন। আর আজ ফাইনালে শ্রীলঙ্কার চ্যালেঞ্জিং স্কোর ভিত গড়ে দেন ভানুকা রাজাপাকশে। ৪৬ ও ৫১ রানে তার দুবার ক্যাচ ফেলে পাকিস্তান। ফল সেই একই, বাংলাদেশের মতো দুই দলেরই হার।

বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘ক্রিকেট হচ্ছে সেখানে আপনাকে সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে হবে। শ্রীলঙ্কা সেটা করতে পেরেছে। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, ভারত একটা ক্যাচ মিস করে টুর্নামেন্ট থেকে আউট হয়্র গেছে। পাকিস্তান আজকে ক্যাচ মিস করেছে। আমরা ক্যাচ মিস করেছি। এটা আমরা শুধু একটা না। ছোট ছোট ভুলগুলো আমরা যতদিন পর্যন্ত ঠিক করতে না পারবো, ততদিন পর্যন্ত এরকম এ অবস্থা থাকবে।’

এদিকে টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স যাচ্ছেতাই হলেও ক্রিকেটারদের প্রতি নাজমুল হাসানে পূর্ণ আস্থা আছে। তিনি দৃঢ় বিশ্বাস করেন বাংলাদেশ ভালো দল, ‘আমার ধারণা আমাদের যে দল আছে আমার দৃঢ় বিশ্বাস অনেক ভালো দল। এখন রেজাল্ট (বিশ্বকাপে) কী হবে জানি না কিন্তু আমরা ভালো দল।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.