জানালা ভেঙে প্রবাসীর স্ত্রীর মুখ বেঁধে ধর্ষণ করলেন দেবর-চাচা

ঘরের জানালা ভেঙে ঘরে ঢুকে এক প্রবাসীর স্ত্রীকে (১৭) পালাক্রমে ধর্ষণের অভিযোগে উঠেছে চাচাতো দেবর রনি ও প্রতিবেশী চাচা দেলোয়ারের বিরুদ্ধে। শনিবার (৩ সেপ্টেম্বর) রাতে নওগাঁর রাণীনগর উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে।
মঙ্গলবার রাতে ভুক্তভোগী ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে চাচাতো দেবর রনি হোসেন (২১) ও প্রতিবেশী চাচা দেলোয়ার হোসেনকে

(৩০) আসামি করে রাণীনগর থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।অভিযুক্ত রনি হোসেন উপজেলার কালীগ্রাম মুন্সিপাড়া গ্রামের রহিদুল ইসলামের ছেলে ও দেলোয়ার হোসেন কালীগ্রাম ডাকাহার পাড়া গ্রামের জাহিদুল ফকিরের ছেলে। ভুক্তভোগী গৃহবধূ জানান, প্রায় দুই বছর আগে একই গ্রামের প্রবাসী এক যুবকের সঙ্গে আমার বিয়ে হয়। বিয়ের পর

থেকে আমি স্বামীর বাড়িতে থাকতাম। প্রায় ৬ মাস ধরে বাবার বাড়িতে আছি। শনিবার রাতে আমি বাবার বাড়িতে একটি ঘরে ঘুমিয়ে ছিলাম। সেদিন বাড়িতে কেউ ছিল না। রাত আনুমানিক ১২টার দিকে ঘরের জানালা ভেঙে চাচাতো দেবর রনি ও প্রতিবেশী চাচা দেলোয়ার ঘরে প্রবেশ করেন। আমি তাদের দেখতে পেলে তারা দুইজন আমার চোখ-মুখ বেঁধে ফেলেন।

এরপর রনি প্রথমে আমাকে ধর্ষণ করেন। পরে চাচা দেলোয়ারও ধর্ষণ করেন। এ ঘটনায় আমি বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে থানায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছি।দ্রুত ধর্ষকদের আটক করে আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির দাবি

জানিয়েছেন ভুক্তভোগী গৃহবধূর পরিবার।রাণীনগর থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ বলেন, ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলার আসামিদের আটকে চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.