ঘুমানোর কথা’ বলে ফাঁস নিল এসএসসি পরীক্ষার্থী

নরসিংদীর বেলাবতে নিজ ঘর থেকে জেমী আক্তার (১৫) নামে এক এসএসসি পরীক্ষার্থীর ঝুলন্ত মরদেহ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার দুপুর ২টায় বেলাব উপজেলার নারায়ণপুর ইউনিয়নের ভাটেরচর গ্রামে গলায় ফাঁস দিয়ে ওই ছাত্রী আত্মহত্যা করে।নিহত জেমী আক্তার একই গ্রামের মো. নাসির মিয়ার মেয়ে। সে বারৈচা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরিক্ষার্থী

ছিল।পরিবার সূত্র জানা গেছে, জেমি সকালে বই খাতা নিয়ে স্কুলের কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়। পরে দুপুরে বাড়িতে ফিরে ঘুমানোর কথা বলে ঘরের দরজা বন্ধ করে দেয়। এ সময় পরিবারের অন্য সদস্যরা ধান আনার জন্য বাড়ির বাইরে ছিল। কিছুক্ষণ পর পরিবারের লোকজন বাড়িতে এসে জেমিকে অনেক ডাকাডাকি করেন। এ সময় জেমির কোনো সাড়া

না পাওয়ায় ঘরের দরজা ভেঙে তার ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পায়।বারৈচা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোস্তফা কামাল জানান, জেমি চলতি বছর এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল। এসএসসি পরীক্ষার্থী যারা, তারা শুধু শনিবার দিন স্কুলে আসে। জেমি আজকে স্কুলে আসেনি। স্কুলের কথা বলে যদি সে বাড়ি থেকে বের হয় তাহলে অন্য কোথাও গেছে কিনা

সেটা আমাদের জানা নেই।নিহত জেমির বাবা নাসির উদ্দীন বলেন, কী কারণে আমার মেয়ে আত্মহত্যা করেছে তা আমরা জানি না। আমার মেয়ের কোনো সমস্যা ছিল না। স্কুল থেকে ফিরে আমাদের সঙ্গে কথা বলেছে। পরে সে ঘুমানোর কথা বলে ঘরের দরজা বন্ধ করে আত্মহত্যা করে।বেলাব থানার সাব ইন্সপেক্টর মো. সজল হক বলেন, খবর পেয়ে আমরা

ঘটনাস্থলে যাই। শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। তার আত্মহত্যার কোনো কারণ উদঘাটন করা যায়নি। আমরা তদন্ত করে দেখছি, কী কারণে ওই শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.