কাজে ডেকে নিয়ে মুক্তিপণ দাবি, ৭ অপহরণকারী আটক

টাঙ্গাইলে সাত অপহরণকারীকে আটক করেছে র‌্যাব। এ সময় অপহৃত এক ব্যক্তিকে উদ্ধার করা হয়েছে। অপহৃত ঐ ব্যক্তিকে কাজের কথা বলে ডেকে নিয়ে মুক্তিপণ দাবি করা হয়।সোমবার ভোরে টাঙ্গাইল শহরের বাজিতপুর থেকে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন- টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার নাগবাড়ী ইউনিয়নের রতনগঞ্জ গ্রামের

আব্দুল মান্নানের ছেলে জামিল হোসেন সাগর, শহরের আদি টাঙ্গাইলের বাসিন্দা হাবিবুর রহমানের ছেলে শাকিল আহাম্মেদ হৃদয়, আলমগীর হোসেনের ছেলে মো. লাবিব খান, ফজলুল হকের ছেলে রাকিবুল ইসলাম, টাঙ্গাইল সদর উপজেলার গড়াইল গ্রামের আবু তাহেরের ছেলে হৃদয় আহাম্মেদ, টাঙ্গাইলের সখীপুর পৌরসভার এবাদত হোসেনের ছেলে বাধন এবং

একই এলাকার মোস্তফা কামালের ছেলে রাব্বি খান।প্রেস বিজ্ঞপ্তি মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-১২ সিপিসি-৩ টাঙ্গাইলের কোম্পানি কমান্ডার মেজর মোহাম্মদ আনিসুজ্জামান।এতে জানানো হয়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১২ সিপিসি-৩ টাঙ্গাইলের একটি দল শহরের বাজিতপুর হাটখোলার বিকাশের দোকানের পাশে অভিযান চালায়। এ সময়

অপহরণকারী চক্রের তিন সদস্যকে আটক করা হয়। পরে তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে একই এলাকার সাহাপাড়ার একটি অটোরাইস মিলের বাউন্ডারির ভেতর থেকে আরো চার অপহরণকারীকে আটক করে র‌্যাব। এ সময় একটি গামছা দিয়ে চোখ ও রশি দিয়ে হাত বাঁধা অবস্থায় থাকা অপহৃত মো. আব্দুর রহিমকে উদ্ধার করা হয়। অপহরণকারীদের কাছ

থেকে ধারালো ছুরি, রশি, গামছা, তিনটি মোটর সাইকেল এবং নগদ ১১ হাজার ৩০ টাকা উদ্ধার করা হয়।প্রেস বিজ্ঞপ্তি আরো জানানো হয়, মো. আব্দুর রহিম পেশায় রাজমিস্ত্রি। রোববার সকালে তিনি কাজের সন্ধানে টাঙ্গাইল শহরের বাসটার্মিনালে এলে কাজের কথা বলে ডেকে নিয়ে তাকে অপহরণ করা হয়। পরে তার বাড়ি থেকে এক লাখ ২০ হাজার

টাকা বিকাশের মাধ্যমে এনে দেওয়ার জন্য অপহরণকারীরা তাকে মারপিট করেন। বিকাশে টাকা আনার বিষয়টি আব্দুর রহিম তার ছোট ভাই আব্দুর রাজ্জাককে মোবাইল ফোনে জানান। আব্দুর রাজ্জাক তার ভাইয়ের অপহরণের বিষয়টি র‌্যাবের টাঙ্গাইল কার্যালয়ে জানান। এ ঘটনায় অপহৃত আব্দুর রহিমের ভাই আব্দুর রাজ্জাক বাদী হয়ে টাঙ্গাইল সদর মডেল থানায় একটি মামলা করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.