শাড়ির আঁচল দিয়ে ঘরজামাই ভ্যানচালকের গলায় ফাঁস

রাজবাড়ী সদর উপজেলার রামকান্তপুর ইউপির বড় মুরারীপুর গ্রামে গলায় ফাঁস নিয়ে মনির হোসেন নামে এক ঘরজামাই ভ্যানচালক আত্মহত্যা করেছেন। রোববার ভোর ৫টার দিকে স্থানীয় একজন মুসল্লি মসজিদে নামাজ পড়তে যাওয়ার পথে রাস্তার পাশের একটি আম গাছের সঙ্গে শাড়ি কাপড়ের আঁচল দিয়ে গলায় ফাঁস নেয়া অবস্থায় তার লাশ ঝুলতে দেখে। খবর পেয়ে রাজবাড়ী থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।

নিহত মনির হোসেন চাঁদপুর জেলার মতলব দক্ষিণ থানার চারাইতা গ্রামের আলী হোসেনের ছেলে। ২০ বছর ধরে তিনি বড় মুরারীপুর গ্রামের শ্বশুর বাড়িতে ঘরজামাই হিসেবে বসবাস করছেন। তার স্ত্রী ও ১১ বছর বয়সী একটি মেয়ে রয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী রওশনারা বাদী হয়ে রাজবাড়ী থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেছেন। রওশানার ভাগনি সুমি খাতুন জানান, মনির হোসেন ভ্যান চালানোর পাশাপাশি গাজীর গান করে বেড়াত। আগের দিন শনিবার সন্ধ্যার দিকে তিনি বাড়ি থেকে বের হয়। রাতে তার মোবাইল ফোনে কল দেয়া হলেও বন্ধ পাওয়া যায়। ভোরে স্থানীয় মসজিদ থেকে মুসল্লিরা এসে তার মৃত্যুর কথা জানায়। তার সঙ্গে এলাকার কারো কোনো ঝামেলা বা পারিবারিক সমস্যা ছিল না।

রাজবাড়ী থানার ওসি মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন জানান, স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে লাশ উদ্ধারের পর সদর হাসপাতালের মর্গে ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে পারিবারিক কলহ বা অশান্তির জেরে আত্মহত্যার ঘটনাটি ঘটতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.