স্ত্রীর সঙ্গে বন্ধুর পরকীয়া, প্রতিবাদ জানিয়ে খুন হলেন স্বামী

স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়েছেন বন্ধু। এই সম্পর্কের কথা জানতে পেরে প্রতিবাদ করেছিলেন স্বামী। তার জেরেই খুন হলেন তিনি। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে মহারাষ্ট্রের নাগপুরে। মৃতের বন্ধু-সহ মোট তিন জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর, অভিযুক্তের নাম সুনীল ভালেকর। খুন হওয়া যুবকের সঙ্গে তার দীর্ঘ দিনের বন্ধুত্বের সম্পর্ক ছিল। বাড়িতে যাতায়াত ছিল। ক্রমশ বন্ধুর স্ত্রীর প্রতি আকৃষ্ট হন তিনি। দু’জনেই সম্পর্কে জড়ান। কিন্তু বন্ধু সেটা জেনে ফেলতেই শুরু হয় অশান্তি। অভিযোগ, এর পরেও সুনীল বন্ধুর স্ত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক রেখে যান। আর বন্ধুকে খুনের ছক কষেন।

পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে উঠে এসেছে, সুনীল তার বন্ধুকে খুনের জন্য দু’জনকে সুপারি দিয়েছিলেন। ভাড়া করা ওই গুন্ডারা পান ১০ হাজার টাকা। এর পর শুরু হয় খুনের পরিকল্পনা। শনিবার রাতে বাজার থেকে ফিরছিলেন ৩০ বছরের ওই ব্যক্তি। তার পিছু নেয় দু’জন। নির্জন জায়গা দেখে প্রথমে ছুরি নিয়ে যুবকের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে এক জন। তার শরীরের একাধিক অংশে আঘাত করা হয়। আর এক জন রাস্তায় পড়ে থাকা পাথর দিয়ে তাঁর মাথা থেঁতলে দেন। সেখানেই কাতরাতে কাতরাতে মৃত্যু হয় যুবকের।

ওই খুনের ঘটনার তদন্তে নামে পুলিশ। মৃতের স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে তারা। সেই সূত্র ধরে উঠে আসে অভিযুক্তদের নাম। পুলিশ জানতে পারে সম্পর্কের টানাপড়েনের জেরেই এই খুন। সুনীল নিজেও জেরায় নিজের দোষ স্বীকার করে নিয়েছেন বলে পুলিশ খবর। অন্য দিকে, দুই খুনি বছর ২২-এর খামেশ এবং ১৮ বছরের রোহতি শঙ্কর নাগপুরেকেও পাকড়াও করেছে পুলিশ। আটককৃতদের বিরুদ্ধে খুনের মামলা রুজু করেছে পুলিশ। খুনে মৃতের স্ত্রীর কোনও ভূমিকা রয়েছে কি না সেটাও তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

সূত্র: আনন্দবাজার

Leave a Reply

Your email address will not be published.