খোঁজ নিতে ঘরে গিয়ে খাটের বক্সে মেয়ের লাশ পেলেন মা

যশোর শহরের আশ্রম মোড়ে রওশন আরা বেগম রশনি নামে এক নারীকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। সোমবার সন্ধ্যায় ঘরের তালা ভেঙে খাটের বক্সের মধ্য থেকে পুলিশ লাশ উদ্ধার করেছে।
নিহত রশনি ওই এলাকার সাবেক প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা মৃত মোস্তাফিজুর রহমান মনুর স্ত্রী।

মৃতের প্রতিবেশী ফিরোজা আক্তার জানান, রওশন আরা রশনি ঘরে একাই থাকতেন। সোমবার নিহত রশনির মা সাবিন রহিম মেয়ের বাড়িতে এসে দেখেন- ঘরে তালা মারা ও রুমের মধ্যে লাইট জ্বলছে। এতে সন্দেহ হলে পুলিশে খবর দেওয়া

হয়। পুলিশ এসে তালা ভেঙে খাটের বক্সের মধ্যে লুকানো মরদেহ উদ্ধার করে। তার এক ছেলে মুন্তাসিমুর রহমান আমেরিকা প্রবাসী ও এক মেয়ে রাশনা মাহতাব মুনা ঢাকার একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া করেন।

নিহতের বৃদ্ধ মা সাবিনা রহিম জানান, ফোনে না পেয়ে বিকেলের দিকে মেয়ের বাড়িতে এসে দেখেন ঘরের বাইরে তালা দেওয়া। সেই সময় তিনি প্রতিবেশীদের ডেকে জড়ো করেন। পরে পুলিশ এসে ঘরের তালা ভেঙে লাশ উদ্ধার করে।

যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক বিচিত্র মল্লিক জানান, নিহতের গলায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বেলাল হোসাইন জানান, সন্ধ্যায় খবর পেয়ে পুলিশ রওশন আরা রশনিকে তালাবদ্ধ ঘর থেকে উদ্ধার করেছে। দুর্বৃত্তরা তাকে গলা কেটে হত্যার পর খাটের বক্সের মধ্যে লুকিয়ে রেখেছিল। বিষয়টি তদন্তে মাঠে নেমেছে পুলিশের একাধিক দল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.