আত্মহত্যার জন্য বিষ কিনতে গিয়ে প্রেম, বিয়ের দাবিতে অনশনে ১ সন্তানের জননী

পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে ৬ দিন ধরে অনশন করছেন ১ সন্তানের জননী। গত সোমবার (২ মে) থেকে বিয়ের দাবিতে সুবিদখালী বাজারের আলী বাংলা চাইনিজ সংলগ্ন মো. রায়হানের (২৫) বাসায় অনশনে বসেছেন সীমা আক্তার (২০) নামে ওই নারী।প্রেমিক মো. রায়হান সুবিদখালী বাজারের সার ও কীটনাশক বিক্রেতা। তিনি উপজেলার আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের ছৈলাবুনিয়া গ্রামের মতি মৃধার ছেলে। অন্যদিকে প্রেমিকা সীমা আক্তার উপজেলার মির্জাগঞ্জ ইউনিয়নের মানসুরাবাদ গ্রামের জব্বার জোমাদ্দারের মেয়ে।

সীমা আক্তার জানান, সাড়ে চার বছর আগে দক্ষিণ কলাগাছিয়া গ্রামের মধু চাপরাসীর ছেলে শহীদুল্লাহর সাথে বিয়ে হয় তার। তাদের তিন বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। দাম্পত্যে কলহের কারণে আত্মহত্যা করার জন্য সুবিদখালী বাজারের রায়হানের কীটনাশকের দোকান থেকে বিষ কিনতে যান সীমা। এ সময় বিষ পান করতে গেলে রায়হান বাঁধা দেয়। এতে তাদের মধ্যে সহমর্মিতা ও সহানুভূতির সৃষ্টি হয় এবং ধীরে ধীরে এটি প্রেমের সম্পর্কের পরিণতি হয়।

সীমা আরও জানান, প্রেমের সম্পর্ক চলাকালে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বহুবার শারীরিক সম্পর্কে জড়ান। রায়হান কৌশলে আগের স্বামীকে তালাক দিতে বাধ্য করেন। এখন বিয়ের কথা বললে অস্বীকার করায় আমি বিয়ের দাবিতে রায়হানের বাড়িতে ৬ দিন ধরে অবস্থান করছি। আমি আসার পরে রায়হান পালিয়ে যায়।

এ বিষয় মির্জাগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন তালুকদার বলেন, এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে আইনের আওতায় আনা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.