বিএনপির সঙ্গে রাজপথে থাকার অঙ্গীকার ২০ দলীয় জোটের

এবার গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারকে হটাতে বিএনপির সঙ্গে রাজপথে থাকার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতারা। তারা বলেছেন, সরকারের দুর্নীতি-লুটপাট-দুঃশাসনে মানুষ অতিষ্ঠ। তাই দেশের মানুষকে বাঁচাতে এ সরকারকে বিদায় করার কোনো বিকল্প নেই। আজ শুক্রবার ২৬ আগস্ট সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ২০ দলীয় জোট শরিক ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) উদ্যোগে মানববন্ধনে জোট নেতারা এসব কথা বলেন। বিদ্যুতের লোডশেডিং এবং জ্বালানি তেলসহ নিত্যপণ্যের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

এ সময় এনপিপির চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদের সভাপতিত্বে এবং যুগ্ম-মহাসচিব মো. ফরিদ উদ্দিনের সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন- জাগপার একাংশের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার লুৎফর রহমান, জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব ও সাবেক সংসদ সদস্য আহসান হাবিব লিংকন, বাংলাদেশ মুসলিম লীগের (বিএমএল) মহাসচিব অ্যাডভোকেট শেখ জুলফিকার বুলবুল চৌধুরী, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, জাতীয় দলের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সৈয়দ এহসানুল হুদা, ন্যাপ ভাসানীর চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আজহারুল ইসলাম, গণদলের চেয়ারম্যান এটিএম গোলাম মওলা চৌধুরী, এনপিপির মহাসচিব মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা, প্রেসিডিয়াম সদস্য নবী চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ফখরুজ্জামান, তোতা মিয়া, কেন্দ্রীয় নেতা অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।

এ সময় আহসান হাবিব লিংকন বলেন, দেশে জ্বালানি তেলের অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধির কারণে সবকিছুর দাম বেড়ে গেছে। এর ফলে মধ্যবিত্ত নিন্মবিত্ত এবং নিন্ম মধ্যবিত্ত নিঃস্ব-দরিদ্র হয়ে গেছে। এছাড়া সরকারের দুর্নীতি-লুটপাটে মানুষ অতিষ্ঠ। সঙ্কট উত্তোরণে অবিলম্বে নির্দলীয় সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন প্রয়োজন। এরপর মোস্তাফিজুর রহমান ইরান বলেন, দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে ১৫০ আসনে ইভিএমে ভোট করার ঘোষণা দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। অর্থাৎ ক্ষমতাসীনরা আগামী নির্বাচনে ইসিকে দিয়ে ১৫০ আসন নিশ্চিত করে ফেলেছে। তাই আমাদের একটাই দাবি হওয়া উচিত, শেখ হাসিনার পদত্যাগ।

এ সময় সৈয়দ এহসানুল হুদা বলেন, এ সরকারের দুর্নীতি-লুটপাটের বিরুদ্ধে জনগণকে জেগে উঠতে হবে, প্রতিবাদে সরব হতে হবে। সরকারকে বিদায় করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে রাজপথে নামতে হবে। এরপর সভাপতির বক্তব্যে এনপিপি চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ বলেন, শেখ হাসিনার আমলে দেশে রিজার্ভ চুরি, শেয়ারবাজার লুট হয়েছে। নিত্যপণ্যের দাম আজ আকাশচুম্বী। এ সরকার ক্ষমতায় থাকলে গণতন্ত্র ও মানুষের ভোটাধিকার ফিরবে না, মানুষের দুর্দশা আরও বাড়বে। তাই অবিলম্বে এ সরকারকে বিদায় করতে হবে। এর কোনো বিকল্প নেই। তিনি বলেন, সরকারকে বিদায় করতে বিএনপি আন্দোলন করছে।

সেই আন্দোলন সফলে বিএনপির সঙ্গে ২০ দলীয় জোটও মাঠে থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.