খাওয়ার সময় আয়ুর্বেদের এই পাঁচ নিয়ম অনুসরণ করুন, রোগ দূরে থাকবে

খাবারের সঙ্গে আমরা কিছু ছোট-বড় ভুল করি যা না করলে আমরা অনেকটাই সুস্থ হতে পারব। আয়ুর্বেদ মতে, শুধুমাত্র সুষম খাদ্য খেলেই যে তা পুষ্টি হিসেবে শরীর শোষণ করে তা নয়। আসলে সঠিক খাবারই শরীরকে শক্তি পায়। কিন্তু

ব্যাপারটা শুধু এখানেই শেষ নয়, প্রাচীনতম চিকিৎসা পদ্ধতি আয়ুর্বেদ খাবার খাওয়া সময় এই নিয়মগুলি অবলম্বণ করলে অসুখ-বিসুখের হাত থেকে রেহাই পারেন সহজেই।যে আপনি যদি আয়ুর্বেদীয় খাবারের সঙ্গে সম্পর্কিত এই সাধারণ

নিয়মগুলি নিয়মিত মেনে চলেন তবে আপনি দীর্ঘকাল রোগের কবল থেকে বাঁচাতে পারবেন এবং সুস্থ দীর্ঘ জীবনযাপন করতে পারবেন।​নিয়ম ১- খিদে পেলে বেশি খাবার নয় খাবারটি ভালোভাবে খান এবং হজম যেন হয় তা নিশ্চিত করুন।

আর এটি করতে হলে আপনার খিদে পেলে কম খাওয়া ভালো। খিদের সময় ৭০ থেকে ৮০ শতাংশ খান। সর্বদা ৭০-৩০ নিয়ম অনুসরণ করুন, যা আপনার পেটের ৭০ শতাংশ পূর্ণ হওয়া উচিত এবং ৩০ শতাংশ খালি হওয়া উচিত।

নিয়ম ২- ভারি লাঞ্চ করুনদুপুরের খাবারটি দিনের সবচেয়ে ভারী খাবার হওয়া উচিত, কারণ হজমের আগুন এবং মানবদেহ সূর্যের গতিবিধি অনুসরণ করে। তাই এই সময়ে আপনার শরীরে পর্যাপ্ত শক্তির জন্য আরও শোষক উপাদানের প্রয়োজন। এমন পরিস্থিতিতে, আয়ুর্বেদ আপনাকে বিকেলে ভারি খাবার খাওয়ার পরামর্শ দেয় না।

রাতে দেরি করে খাবেন নাদেরি করে রাতের খাবার খাওয়া আজকাল একটা ফ্যাশন হয়ে দাঁড়িয়েছে। কিন্তু তা করলে আপনাকে অনেক ঝামেলায় ফেলতে পারে। কারণ আপনার শরীর রাতে বিশ্রামের জন্য প্রস্তুত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের

হজম প্রক্রিয়া ধীর হয়ে যায়। এটি আপনার খাওয়া ক্যালোরিগুলি চর্বি হিসাবে সঞ্চিত হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ায়। তাই ঘুমানোর আগে খাওয়া এড়িয়ে চলুন। ঘুমানোর কমপক্ষে ৩ ঘন্টা আগে খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন।নিয়ম ৪ – তাজা খাবার খান

আয়ুর্বেদ অনুসারে, খাবার পুনরায় গরম করা বাঞ্ছনীয় নয়। তাই আগের দিনের বাসি খাবার খাওয়া এড়িয়ে চলুন এবং বার বার আপনার খাবার গরম করা থেকে বিরত থাকুন। দিনে তৈরি খাবার রাতে খাওয়া গেলেও ভালো, কিন্তু ফ্রিজে রাখা খাবার আবার গরম করলে আপনার স্বাস্থ্য নষ্ট হতে পারে।

​নিয়ম ৫- খাবার হজম হওয়ার পরই আবার খানযদি আগের খাবারটি সম্পূর্ণরূপে হজম না হয় তবে অনুগ্রহ করে খাবারটি গ্রহণ করবেন না। শুকনা আদা দিয়ে গরম পানি পান করুন। এটি করার সময়, আগের খাবারটি হজম হতে দিন, তবেই আবার খান।

সূত্র: এই সময়

Leave a Reply

Your email address will not be published.