বিয়ের ভয়ে রোগী সেজে হাসপাতালে ভর্তি হলেন বর

বিয়ে করতে রাজি না যুবক , তাই নিজের বিয়ের দিনই অসুস্থতার ভান করে হাসপাতালে ভর্তি হলেন। কিন্তু শেষরক্ষা হলো না। তার ছলচাতুরি শেষমেশ প্রকাশ্যে আসতেই হুলস্থুল বেধে যায়। ঘটনাটি তেলঙ্গানার।
পাত্রের নাম অন্বেষ। গত ২১ অগস্ট তার বিয়ে ছিল। পেশায় সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার অন্বেষ আমেরিকায় কাজ করেন। বাড়িতে তিনি জানিয়েছিলেন, সম্বন্ধ দেখার এক সপ্তাহের মধ্যে বিয়ে করে আমেরিকায় চলে যাবেন। সেই মতো দ্রুত সম্বন্ধ দেখে জগতিয়াল জেলায় বিয়ে ঠিক করা হয় অন্বেষের।

সব ঠিকঠাক হয়ে যাওয়ার পর ২৫ লাখ টাকা পণ দিতে রাজি হয় পাত্রীর পরিবার। পাকা দেখার দিন ১৫ লাখ টাকা দেয় তারা। বাকি টাকা বিয়ের দিন দেওয়ার কথা ছিল। বিয়ের দিন আসতেই অন্বেষ তার আত্মীয়দের জানান, বাথরুমে পড়ে গিয়ে তিনি চোট পেয়েছেন। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করানো দরকার। তার এই কথা শুনে আত্মীয়রা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। অন্বেষকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

তবে চিকিৎসক পরীক্ষা করার পর জানিয়ে দেন, অন্বেষ ঠিক আছেন। তার মিথ্যাচার ধরা পড়ে যাওয়ার ভয়ে ফের শরীর খারাপের ভান করেন। আবারো তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

এবারও চিকিৎসক জানিয়ে দেন, অন্বেষ ঠিক আছেন। শরীরে কোনো সমস্যা নেই। প্রায় ৫ ঘণ্টা ধরে এই নাটক চলার পর পাত্রীর পরিবারের সন্দেহ হয়। তারা অন্বেষকে চেপে ধরেন সত্যি কথা বলার জন্য। চাপের মুখে পড়ে অন্বেষ জানান, তিনি বিয়ে করতে রাজি নন। এ কথা শোনার পরই পাত্রীপক্ষ ক্ষোভে ফেটে পড়ে। দুই পরিবারের মধ্যে ঝামেলার শেষে বিয়ে বাতিল হয়ে যায়।

সূত্র: আনন্দবাজার/ টাইমস নাউ নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published.