বিয়ের দাবিতে ছাত্রলীগ নেতার বাড়িতে তরুণীর অনশন

এবার নাটোরের সিংড়ায় বিয়ের দাবিতে দুইদিন ধরে ছাত্রলীগ নেতা প্রেমিক কে. এম রবিন খান (২৬) এর বাড়িতে অনশনে বসেছেন এক প্রেমিকা মোছা: রিতা খাতুন (২৪)। সে গত সোমবার দুপুর থেকে উপজেলার হাতিয়ান্দহ

ইউনিয়নের নলখোলা (গুনাইখারা) এলাকায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান করছে। জানা যায়, প্রথমে তাদের ফেসবুকের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে, আস্তে আস্তে সম্পর্কের সময় বাড়ে। এ ঘটনা নিয়ে গত সোমবার সকাল

থেকে এলাকায় জনসাধারণের মধ্যে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। মেয়েটিকে দেখতে প্রেমিক রবিন এর বাড়িতে ভিড় জমান এলাকাবাসী।জানা যায়, গত সোমবার দুপুর থেকে জিন্নোত খানের ছেলে সিংড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রেমিক রবিন খান এর বাড়িতে রাজশাহীর কাটাখালি উপজেলার চকবেলঘড়িয়া (বাকরাবাজ) গ্রামের এক তরুণী বিয়ের

দাবিতে অনশন করছে। সেই সময় ছেলের অভিভাবকরা বিয়ের আশ্বাস দিয়ে মেয়েটিকে তার বাড়িতে পাঠিয়ে দেবার চেষ্টা করতেছে। বর্তমানে ছেলের পরিবারে তার বৃদ্ধা মা আছে ও তার বাবা প্রবাসী দেশের বাহিরে থাকেন ও তার বড় ভাই আলাদা পরিবারে বসবাস করেন।

এ বিষয়ে প্রেমিকা রিতা খাতুন বলেন, আমাদের দীর্ঘ ৫ বছরের প্রেম। ছেলেটা আমাকে জোর করে ইমোশনালি ব্যাকমিল করে রিলেশন করতে বাধ্য করেছিলো এখন তাকে আমি অনেক বেশি ভালোবেসে ফেলেছি, কিন্তু সে এখন আমাকে বিয়ে করতে পারবে না বলছে। তিনি আরো বলেন, প্রেমিক রবিন তার বাড়িতে অনেকবার বেড়াতে গিয়েছে এবং আমার

পরিবারকেও বিয়ের করার প্রস্তাব রেখেছিলো। আমার দাবি, রবিন তার পরিবারের লোকজন বিয়ের বিষয়টির সুরাহা দিতে হবে। তা না করা পর্যন্ত আমার অনশন চলবে বলে জানান প্রেমিকা।এ বিষয়ে হাতিয়ান্দহ ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাকুর রহমান চঞ্চল বলেন, আমি এলাকায় ছিলাম অনশনের বিষয়টি জেনেছি। ছাত্রলীগ নেতার বাড়িতে বিয়ে দাবিতে রাজশাহী

থেকে এসেছে আমি স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলেছি, যাতে উভয় পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে স্থানীয় ভাবে বিষয়টির মীমাংসা করে দেয়া হয়। মেয়েটি অসহায় বিধান সে ছেলের বাড়িতে অবস্থান নিতে বাধ্য হয়েছে, কাল স্থানীয় নেতাকর্মীদের সাথে ও দুই পরিবারের সাথে কথা বলে তাদের বিয়ের ব্যবস্থা করে দেওয়ার চেষ্টা করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.