বাকিতে মদ না পেয়ে মাদক ব্যবসায়ীকে কোপালো চায়ের দোকানদার

প্রথমবার মদ কিনে খাওয়ার পর ভালো নেশা না হওয়ায় আবার দোকানে যান মাদকাসক্ত যুবক। কিন্তু পকেটে না থাকায় দোকানির কাছে বাকিতে মদ চান তিনি। দোকানদার বাকিতে মদ দিতে অস্বীকার করলেই ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাড়াতি

কোপালেন ঐ যুবক।সোমবার দুপুরে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বাঁকুড়ার বেলিয়াতোড় থানার বৃন্দাবনপুর এলাকায় চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে।আহতকে গুরুতর জখম অবস্থায় বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বাঁকুড়ার বৃন্দাবনপুর গ্রামের অদূরে ভাসাপুলের কাছে বিলাতি মদের একটি দোকান রয়েছে।স্থানীয় সূত্রের খবর, সেখান থেকে মদ কেনেন চায়ের দোকানদার প্রবীর মণ্ডল। কিছুক্ষণ পরেই আবার ঐ দোকানে ফিরে আসেন তিনি। জানান, প্রথমবার নেশাটা জমেনি। আরো মদ দরকার। তবে টাকা পরে দেবেন। অন্যদিকে, দোকানের কর্মী শীতল ঘোষ তা

শুনতে নারাজ। এ নিয়ে কিছুক্ষণ তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা চলে। অভিযোগ, এরপর আচমকা মদের দোকানে ঢুকে শীতলকে রামদা দিয়ে এলোপাথাড়ি কোপ মারতে শুরু করেন প্রবীর। ঘাড় ও গলায় মিলিয়ে প্রায় ১২ বার কোপ মারেন তিনি। তারপর ঐ এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যান। স্থানীয়রা আহতকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান।

বেলিয়াতোড় থানার পুলিশ ঐ মদের দোকানের সিসি ক্যামেরার ছবি দেখে প্রবীরকে চিহ্নিত করে। পরে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।স্থানীয় সূত্রের আরো খবর, শীতল ও প্রবীর দুজনেরই সাগরাকাটা গ্রামের বাসিন্দা। তাদের পুরনো কোনো শত্রুতার জেরে এমন ঘটনা কিনা তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.