গাজীপুরের কালীগঞ্জে শীতলক্ষ্যা নদীতে পিকনিকের ট্রলারে বজ্রপাতের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ভয়ে রুপাই হোসেন (২১) নামে এক যুবক নদীতে লাফ দিয়ে নিখোঁজ হন।নিখোঁজের দুইদিন পর শনিবার (৬ আগস্ট) সকাল ৬টার দিকে সেই যুবকের লাশ শীতলক্ষ্যায় নদী থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কালীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার মো. শামীম ভূঁইয়া। এরআগে বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) দুপুরে উপজেলার মোক্তারপুর ইউনিয়নের সাওরাইদ এলাকায় শীতলক্ষ্যা নদীতে বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে।

নিহত রুপাই কালীগঞ্জ পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের বাঘেরপাড়া গ্রামের আব্দুল জব্বারের ছেলে। পেশায় তিনি একজন মাহেন্দ্রচালক ছিলেন।ফায়ার সার্ভিস টিম লিডার মো. শামীম ভূঁইয়া জানান, নিখোঁজের খবর পেয়ে টঙ্গী থেকে ৬ সদস্যের

একটি ডুবুরি দল এসে উদ্ধার কাজ শুরু করে। বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত নিখোঁজের কোনো সন্ধান না পেয়ে ওইদিনের মতো উদ্ধার কাজ শেষে করে ডুবুরি দল। পরদিন শুক্রবার (৫ আগস্ট) স্থানীয় ও নিখোঁজের পরিবারের লোকজন শীতলক্ষ্যা নদীতে নিখোঁজের সন্ধানের চেষ্টা করলেও তা সম্ভব হয়নি। পরে শনিবার সকালে লাশটি শীতলক্ষ্যা নদীতে

নিখোঁজ হয়ে যাওয়া স্থানেই ভেসে ওঠে।কালীগঞ্জ থানার ডিউটি অফিসার এসআই আব্দুল করিম জানান, বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছ। তবে কোনো অভিযোগ না থাকায় পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.