চোখ নারীর সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে। আর চোখের সৌন্দর্য অটুট রাখে ঘন পাপড়ি। চোখ ছোট হলেও, পাপড়ি ঘন হলে দেখতে আকর্ষণীয় লাগে। তাই অনেকেই পাপড়িতে মাসকরা দেন কিংবা আইল্যাশ ব্যবহার করেন। কাজল কালো চোখে মাসকারা ছোঁয়া সৌন্দর্যে ধরণ আরো খানিকটা বাড়িয়ে দেয়। প্রিয়জনের নজর আটকে যায় সেই চোখে। তবে মাসকারা দিয়ে সবসময় চোখকে আকর্ষণীয় করে রাখা তো সম্ভব নয়। প্রাকৃতিকভাবেই চোখের পাপড়ি ঘন হলে মাসকারার মুখাপেক্ষীও হতে হয় না। চোখ এমনিতেই আকর্ষণীয় দেখায়। চোখের ঘন পাপড়ি মাসকরা ছাড়াই আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে।

এর জন্য় ঘরোয়া কিছু উপায়ে ভরসা রাখা যায়। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক কীভাবে ঘন করা যাবে চোখের পাপড়ি সে সম্পর্কে-

ভিটামিন ই
ভিটামিন ই ব্যবহার করে চোখের পাপড়ি ঘন করে নিতে পারেন। এটি ত্বক ও নখের যত্নেও বেশ কার্যকরী। এক্ষেত্রে ভিটামিন ই ক্যাপসুল ব্যবহার করতে পারেন। ভিটামিন ই ক্যাপসুলের ভেতরে তেলটি চোখের পাপড়িতে লাগিয়ে নিন। খেয়াল রাখবেন তা যেন চোখের ভেতরে না যায়। হাতের সাহায্যে হালকাভাবে শুধু চোখের পাপড়িতে এটি লাগিয়ে নিন। কিছুক্ষণ রেখে দিন। এরপর তুলোর বল দিয়ে মুছে নিন। তাছাড়া মাসকারা ব্যবহারের আগেও ভিটামিন ই ক্যাপসুল লাগিয়ে নিতে পারেন। এতে চোখের পাপড়ি আরো আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে।

ক্যাস্টর অয়েল
ক্যাস্টর অয়েল ব্যবহারেও চোখের পাপড়ি ঘন হয়ে উঠবে। ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ থাকে ক্যাস্টর অয়েল। যা চুল বৃদ্ধিতে দারুন কাজ করে। প্রতিদিন ঘুমানোর আগে আঙুলের ডগায় অল্প ক্যাস্টর অয়েল নিন। তা চোখের পাপড়িতে লাগিয়ে রাখুন। সকালে সাধারণ পানিতে মুখসহ চোখের পাতা ধুয়ে নিন। কিছুদিনের মধ্যেই চমক দেখতে পাবেন।

তেলের মিশ্রণ
নারিকেল তেল, বাদাম তেল এবং অলিভ অয়েল একসঙ্গে মিশিয়ে চোখের পাপড়িতে লাগিয়ে নিন। প্রোটিন, খনিজ উপাদান সমৃদ্ধ এই তেলের মিশ্রণ চোখের পাপড়ি ঘন করবে। দিনের যে কোনো সময়ই এটি ব্যবহার করা যাবে। চোখের পাপড়ি তেলটি লাগিয়ে রাখুন। তিন থেকে চার ঘণ্টা পর ধুয়ে ফেলুন। ধোয়ার আগে পাতলা সুতি কাপড় দিয়ে মুছে নিলে ভালো হয়। তেল চোখে গেলে জ্বালাভাব হবে। একদিন পরপর এটি ব্যবহার করুন। শিগগরিই ঘন হয়ে উঠবে চোখের পাপড়ি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.