পরীক্ষার কেন্দ্রে আসতে হয়ে গেছে দেরি। কি হবে এখন সাগর যে দিতে হবে পাড়ি। স্বপ্নকে যে ছুঁতে হবে তাইতো ছুটছে গুচ্ছ পরীক্ষার্থী। আর তাদেরকে সহযোগিতা করছে জবি বিএনসিসি। আর এভাবেই পরীক্ষার্থীদের স্বপ্ন পূরণে সহযোগিতা করে আসছে জবির স্বেচ্ছাসেবক সংগঠনগুলো।

দেশের ২২টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয়বারের মতো গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ ৩০ জুলাই দুপুর ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত বিজ্ঞান (এ) ইউনিটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরিক্ষা কে কেন্দ্র করে শিক্ষার্থীদের স্বেচ্ছাসেবক সংগঠনগুলো সার্বিকভাবে সহযোগিতা করতে দেখা যায়।

শিক্ষার্থীদের ক্যাম্পাসে শৃংখলার সাথে প্রবেশ করানো আবার বের হতে সাহায্য করা, তাদের পরীক্ষার হল রুম দেখিয়ে দেওয়া, খাবার পানির ব্যবস্থা করা, ইত্যাদি সেবামূলক কাজ করে আসছে সেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলো। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য বিএনসিসি, রোভার স্কাউট এবং রেঞ্জার্স।

আজ ঢাকায় ৯ টি সহ দেশের ১৯ টি কেন্দ্রে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা নেওয়া হয়। এদের মধ্য জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় এ সবথেকে বেশি ছাত্র-ছাত্রীদের আসন পড়ে। বেশিরভাগ শিক্ষার্থী নির্ধারিত সময়ের আগে কেন্দ্রে প্রবেশ করলেও অনেককে পরিক্ষা শুরুর পরও কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেখা যায়। আর দেরী করা শিক্ষার্থীদের জবি বিএনসিসি,রোভার স্কাউট, রেঞ্জার্স সদস্যদের সার্বিক সহযোগিতায় পরিক্ষার হলে নিয়ে যাওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.