সিরাজগঞ্জের তাড়াশে নিজেই নিজের অণ্ডকোষ কেটে ফেলেছেন আব্দুল মজিদ (৪৭) নামের এক ব্যক্তি। বারুহাঁস ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ময়নুল হক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। শনিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে উপজেলার বারুহাঁস ইউনিয়নের সান্দ্রা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আব্দুল মজিদ সান্দ্রা গ্রামের হাজী খোরশেদ আলমের ছেলে। তিনি দুই সন্তানের বাবা। গুরুতর আহত অবস্থায় স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে রাতেই বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (শজিমেক) ভর্তি করেন।

স্থানীয়রা জানায়, সান্দ্রা গ্রামের কৃষক আব্দুল মজিদ তার একমাত্র ছেলে মামুনকে দুই বছর আগে বিয়ে করান। কিন্তু তাদের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বনিবনা না হওয়ায় কিছুদিন আগে পারিবারিক সালিশের মাধ্যমে তিনি প্রায় ৭ থেকে ৮ লাখ টাকা খরচ করে ছেলের স্ত্রীকে তালাক করান। এ নিয়ে আব্দুল মজিদ মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন। ছেলের ওপরও ক্ষোভ ও অভিমান কাজ করছিল।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ঘটনার রাতে খাবার খেয়ে আব্দুল মজিদ স্ত্রীর সঙ্গে ঘুমিয়ে পড়েন। রাত ২টার দিকে নিজেই ধারালো দা দিয়ে একটি অণ্ডকোষ কেটে ফেলেন। কিছুক্ষণ পর পরিবারের সদস্যরা বিষয়টি টের পেয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.