ফাতিমা পায়মান। বয়স ২৭ বছর। যিনি একজন শরণার্থী হিসেবে আফগানিস্তান থেকে অস্ট্রেলিয়ায় এসেছিলেন। আর অস্ট্রেলিয়ার সংসদেই প্রথম হিজাব পরিহিত সিনেটর হিসেবে ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন তিনি। জিও নিউজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, বাবার কথা মনে করে সংসদে বক্তৃতা দিতে যেয়ে ভেঙে পড়েন এই আফগান তরুণী। কারণ তার বাবা পরিবারের জন্য অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছেন, যিনি একজন শরণার্থী হিসেবে পরিবার নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় এসেছিলেন।

২০১৮ সালে পায়মানের বাবা ক্যানসারে মারা যান। সংসদে পায়মান বলেন, কে ভেবেছিল আফগানিস্তানে জন্ম নেয়া একটি শিশু ও শরণার্থীর মেয়ে একদিন অস্ট্রেলিয়ার সংসদের সিনেটর হবে?পায়মান ২০০৩ সালে বাবা-মা ও তিন সহোদরের সঙ্গে অস্ট্রেলিয়ায় আসেন। সে সময় তার বয়স ছিল ৮ বছর। প্রথমে তিনি পার্থের অস্ট্রেলিয়ান ইসলামিক কলেজে ভর্তি হন। এরপর ডাক্তার হওয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে যান। একপর্যায়ে নিজেকে রাজনীতির সঙ্গে জড়িয়ে ফেলেন।

ভাষণে নিজের হিজাব পরা নিয়েও কথা বলেন পায়মান। নিজের পছন্দেই হিজাব পরছেন উল্লেখ করেন তিনি। পায়মান বলেন, যারা আমার কী পোশাক পরা উচিত, সেই উপদেশ দিতেন কিংবা আমার বাহ্যিক অবস্থা দেখে আমার যোগ্যতা বিবেচনা করতে পছন্দ করেন, তারা জেনে রাখুন, হিজাব আমার পছন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.