দিনাজপুরের খানসামায় আম বাগান থেকে গলায় শাড়ি পেঁচানো অবস্থায় সাদেকা বেগম নামে এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে স্বজনদের দাবি, তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। শুক্রবার সকালে উপজেলার ভেড়ভেড়ী ইউপির সায়েদ চেয়ারম্যানপাড়া নামক এলাকার আম বাগান থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। সাদেকা বেগম ওই এলাকার চৌরঙ্গী বাজারের ডাঙ্গাপাড়ার আব্দুস সামাদের মেয়ে। নয়মাস আগে প্রথম স্বামী জাহাঙ্গীর আলমকে ডিভোর্স দিয়ে নীলফামারী সদর উপজেলার দারোয়ানী এলাকায় দ্বিতীয় বিয়ে করেন তিনি।

স্থানীয়রা জানায়, স্থানীয় আজম আলি ধান রোপণ করার জন্য মাঠে এলে সাদেকার গলায় শাড়ি পেঁচানো লাশ দেখতে পান। এ সময় খবর পেয়ে সাদেকার মা ও ভাইবোনসহ প্রতিবেশীরা ঘটনাস্থলে আসেন। পরে এলাকাবাসী থানা খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। তবে স্বজনদের দাবি, তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে।

এদিকে, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন খানসামা থানার তদন্ত অফিসার তাওহীদ ইসলাম, উপপরিদর্শক এসআই ফরহাদ হোসেন ও বীরগঞ্জ সার্কেল অফিসার ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খোদাদাদ হোসেন।

বীরগঞ্জ সার্কেল অফিসার ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খোদাদাদ হোসেন বলেন, লাশের প্রাথমিক সুরতহাল করেছি। পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা পর প্রকৃত তথ্য জানা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.