কাজের সময় অর্ধেক দিনই হয়তো পেটে দানা-পানি পড়ে না। মেলে না সবুজ ঘাস। বিয়ের মৌসুমে সেই হাঁড় বেরিয়ে আসা পাঁজরের ওপরেই চাপানো হয় জরির সাজ। এরপর তাতে বর, কখনো বসে পড়েন আরও কেউ। ব্যান্ডপার্টি-ডিজে গানের তুমুল অত্যাচার সহ্য করতে হয় ভাড়ার ঘোড়াদের। তবে এবার সহ্যের সীমা ছাড়িয়ে গেলো। উচ্চৈস্বরে গান আর নাচানাচিতে ক্ষেপে উঠলো একটি ঘোড়া। তার লাথিতে আহত হলেন একাধিক বরযাত্রী।

সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তর প্রদেশের হামিরপুর জেলার মৌদহে। আহতের স্থানীয় সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। ঘটনার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তাতে দেখা যায়, প্রচণ্ড শব্দে হিন্দি গান বাজছে। সেই তালে তালে নাচছে বরযাত্রীরা। এর মধ্যে হঠাৎ ক্ষেপে যায় ঘোড়াটি। লাফালাফি শুরু করে দেয় সে। পশুপ্রেমীরা বলছেন, ঘোড়া সাধারণত শান্ত পরিবেশ পছন্দ করে। কিন্তু শহরের ঘোড়াদের ক্রমাগত যানজট, হৈ-হট্টগোল, বাজনার শব্দের সঙ্গে অভ্যাস করিয়ে দেওয়া হয়। তবে তারও সীমা রয়েছে।

এর আগেও বরযাত্রীদের ঘোড়া ক্ষেপে ওঠার ঘটনা একাধিকবার ঘটেছে। ২০১৬ সালে হায়দরাবাদে ঘোড়ার লাথিতে প্রাণ হারায় ১৯ বছর বয়সী এক ড্রামবাদক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.