পরিচয় ফেসবুকে এবং আত্মীয়ের বাড়িতে যাওয়া-আসার সূত্র ধরে। এরপর জড়িয়ে পড়ের প্রেমের সম্পর্কে। সম্পর্ক চলে সাড়ে তিন বছর। একপর্যায়ে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হন তারা। হঠাৎ প্রেমিকা জানতে পারেন প্রেমিক সাগর বিশ্বাস অন্যত্র বিয়ে করতে যাচ্ছে। ওই খবরে প্রেমিকের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অবস্থান নেন তিনি। মঙ্গলবার বিকেলে ঘটনাটি ঘটেছে রংপুরের বদরগঞ্জের লোহানিপাড়া ইউপির মাদাই খামারের জেলেপাড়ায়। প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নেয়া ওই প্রেমিকা নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী। তার বাড়ি রংপুরের পীরগঞ্জের উজির দাসপাড়া গ্রামে। তার বাবা একজন কৃষক।

বিষয়টি নিশ্চিত করে লোহানিপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান ডলু শাহ্ বলেন, বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নেওয়া ওই শিক্ষার্থীর অভিযোগ, সাড়ে তিন বছর ধরে প্রেমিক সাগর বিশ্বাসের সঙ্গে তার সম্পর্ক। তাদের দুজনের ফেসবুকে এবং আত্মীয়ের বাড়িতে যাওয়া-আসার সূত্র ধরে পরিচয়। দীর্ঘদিন কথাবার্তার একপর্যায়ে তারা শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হন। মঙ্গলবার হঠাৎ জানতে পারেন সাগর বিশ্বাস অন্যত্র বিয়ে করতে যাচ্ছে। এ খবরে বিকেল ৫টার থেকে ওই বাড়িতে অবস্থান নেন তিনি।

ওই প্রেমিকা বলেন, আমাদের মধ্যে সাড়ে তিন বছরের প্রেমের সম্পর্ক। এর মধ্যে আমরা স্বামী-স্ত্রীর মতো মেলামেশা করেছি। কিন্তু সাগর এখন আমাকে ছেড়ে দিনাজপুরের ফুলবাড়ী থানার বেলঘাটা ইউপির একটি মেয়েকে বিয়ে করতে যাচ্ছে। সেজন্যই আমি তাদের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছি। সাগর আমাকে বিয়ে না করা পর্যন্ত আমি বাড়ি থেকে নড়ব না। তিনি অভিযোগ করে বলেন, সাগরের বাড়িতে আসার পর তার বাবা দুলাল বিশ্বাসসহ পরিবারের লোকজন এবং স্থানীয় চৌকিদার জমশেদ আলী আমাকে বাড়ি থেকে বের করার চেষ্টা করেছেন। একপর্যায়ে হুমকি-ধমকিও দেন। এতে আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

তবে এ ব্যাপারে কথা বলতে রাজি হননি সাগর বিশ্বাসের পরিবারের সদস্যরা। ঘটনার পর থেকে আড়ালে রয়েছেন প্রেমিক সাগর। এতে স্থানীয়দের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। বদরগঞ্জ থানার ওসি হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, রাত সাড়ে ১০টা পর্যন্ত আমার কাছে এ ধরনের কোনো ঘটনার খবর আসেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.