বাংলাদেশ রেলওয়ের অব্যবস্থাপনা, টিকিট কালোবাজারি ও যাত্রীদের ভোগান্তি নিরসনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মহিউদ্দিন রনি ও তার সমর্থকদের কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে ঢুকতে বাধা দেওয়া হয়েছে। পরে কমলাপুর স্টেশনের ভেতরে ঢুকতে না দেওয়ায় রনি ও তার সমর্থকরা প্রবেশপথে অবস্থান নেন। শনিবার (২৩ জুলাই) রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনী ও আনসার সদস্যরা তাদের বাধা দেন। এ সময় তারা স্টেশনের সব ফটক বন্ধ করে দেন।

অবস্থান কর্মসূচি কিছুক্ষণ চলার পর সেখানে রনি ও তার সমর্থকদের লক্ষ্য করে পচা ডিম নিক্ষেপ করেন কয়েকজন যুবক। পচা ডিম রনির গায়ে না লাগলেও তার পাশে থাকা দুই সমর্থকের শরীরে পড়ে। আন্দোলনরত একজন গণমাধ্যমকে জানান, কয়েকজন যুবক পচা ডিম নিক্ষেপ করে পালিয়ে যায়। দুজনের শরীরে লেগেছে তাদের ছোড়া ডিম। এ বিষয়ে মহিউদ্দিন রনি গণমাধ্যমকে বলেন, যতদিন দাবি আদায় না হবে, ততদিন আমার অবস্থান কর্মসূচি চলবে।

উল্লেখ্য, রেলওয়ের অব্যবস্থাপনা দূর করার দাবি-সংবলিত প্ল্যাকার্ড হাতে কমলাপুর স্টেশনে ৭ জুলাই থেকে টানা ১২ দিন অবস্থান করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মহিউদ্দিন রনি। এরপর গত মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) রেলের মহাপরিচালককে ৬ দফা দাবি সম্বলিত স্মারকলিপি দেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.