হঠাৎ মারা যান ৫৫ বছর বয়সী রোস্তম আলী। স্বাভাবিক মৃত্যু ভেবে দাফনের প্রস্তুতিও নিচ্ছিলেন স্বজনরা। কিন্তু জীবনের শেষ গোসলে নেয়ার পর দেখা যায় তার গোপনাঙ্গ কাটা। এরপরই মৃত্যু নিয়ে দেখা দেয় রহস্য।শুক্রবার পঞ্চগড় সদর উপজেলার হাড়িভাসা ইউনিয়নের প্রত্যন্ত

শালুকপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। রোস্তম আলী একই এলাকার আব্দুল হামিদের ছেলে।রোস্তম আলীর স্ত্রী আয়না বেগম জানান, ছয়দিন আগে কাউকে না জানিয়ে অজানা কারণে নিজের গোপনাঙ্গের অর্ধেক কেটে ফেলেন তার স্বামী। পরে কাপড়ে রক্ত দেখে জিজ্ঞেস করলে তিনি

বিষয়টি স্বীকার করেন। এ কদিন তার চিকিৎসা করেন স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক। স্বামী মানসিক ভারসম্যহীন ছিলেন বলেও তার।তিনি বলেন, স্থানীয় চিকিৎসকরা হাসপাতালে নিতে বলেছিলেন। কিন্তু মানসম্মানের ভয়ে কাউকে জানানো হয়নি। শুক্রবার হাসপাতালে নেয়ার প্রস্তুতি নেয়া

হচ্ছিল। কিন্তু এর আগেই তিনি মারা যান।স্থানীয়রা জানায়, নিজে থেকেই কেউ গোপনাঙ্গ কেটে গোপন রাখবে এটা হতে পারে না। এছাড়া রোস্তম আলী সহজ-সরল মানুষ ছিলেন। পরিকল্পিত কোনো ঘটনা রয়েছে বলে সঠিক চিকিৎসাও করাননি তার স্ত্রী-সন্তানরা। সঠিক তদন্ত করে

এর রহস্য উদঘাটনের দাবি জানান তারা।পঞ্চগড় সদর থানার এসআই দ্বীন মোহাম্মদ বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর আসল কারণ জানা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.