সকালের নাস্তায় কিংবা অফিসের টিফিনে অনেকেই সিদ্ধ ডিম রাখেন। অনেক খাবারের সঙ্গে স্বাস্থ্যকর খাবার হিসেবে ডিম খাওয়া যেতে পারে। অফিসে বেরোনোর আগে সিদ্ধ করে রাখা ডিম দুপুর পেরিয়ে খাচ্ছেন। কোনো ক্ষতি হচ্ছে না তো? আদৌ কতটা স্বাস্থ্যকর এই অভ্যাস?
সিদ্ধ করে রাখা ডিম ফ্রিজে রাখলে সপ্তাহখানেক ভালো থাকে। তবে তা না হলে সিদ্ধ করার প্রায় ঘণ্টা তিনেকের মধ্যে সিদ্ধ ডিম খাওয়াই

ভালো। কারণ সিদ্ধ ডিম বেশিক্ষণ ভালো থাকে না।সিদ্ধ করা ডিম ভালো রাখতে তাপমাত্রার দিকে খেয়াল করা জরুরি। ডিম সংরক্ষণ করতে ৪ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কম তাপমাত্রা প্রয়োজন। ফ্রিজের এই তাপমাত্রায় সিদ্ধ ডিম খোসাসহ রেখে দিলে কিছুদিন ভালো থাকবে। খোসা ছাড়িয়ে রাখলে ডিম নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।

ডিম নষ্ট হয়েছে কিনা তা জানবেন কীভাবে?যদি আপনি মনে করেন যে ডিমটি খারাপ হয়ে গেছে, তাহলে আপনি দেখতে পারেন যে ডিমের খোসা চটচটে হয়ে গিয়েছে, বা তার রং চকলেট হয়ে গেছে। যদি তাই হয়, ডিম খাওয়ার উপযোগী নয়। মনে রাখবেন যদি ডিম নষ্ট হয়ে যায়

তাহলে তা কখনই খাবেন না। এটি করলে আপনার ডায়রিয়া, বমি এবং নার্ভাসনেসের মতো সমস্যা হতে পারে। অনেকেই ডিমের কুসুমের সবুজ রঙকে খারাপ বলে মনে করেন। কিন্তু ডিম অতিরিক্ত রান্না করা হলে এটি ঘটে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.