আজকাল বেশিরভাগ নারীই চাকরিজীবী। এক হাতেই তারা ঘর এবং অফিস সামলাচ্ছেন। আর এর জন্য তাদের অনেক পরিশ্রমও করতে হচ্ছে। তাইতো নারীদের খাওয়ার দিকে বিশেষ যত্ন নিতে অনেকেই বলে থাকেন। কিন্তু সে অনুযায়ী নিজের যত্ন নেন না অনেক নারীই।
অন্যদিকে কোন খাবার খেলে যে যত্ন নেয়া হবে, তা অনেকেরই জানা থাকে না। খাদ্য শুধু স্বাস্থ্যের উন্নতির জন্য তো প্রয়োজন হয় না, তা বহু অসুখের থেকে বাঁচাতেও পারে। নারীদের শরীরের গঠন পুরুষদের থেকে বেশ আলাদা। তাই কিছু বিশেষ ধরনের খাবার তাদের বেশি কর্মশক্তি জোগাতে পারে।

কয়েকটি খাবারের উপর বিশেষ ভরসা রাখা যেতেই পারে। তাতে কর্মক্ষমতা বাড়ে, আবার অসুস্থতার আশঙ্কাও খানিক নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব হয়। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক এমন তিনটি খাবার সম্পর্কে, যা নারীদের কর্মক্ষমতা বাড়াতে পারে-

ওটস

হজমের সমস্যা দূর করে এই খাবার। হার্টের সমস্যা ও রক্তচাপও রাখে নিয়ন্ত্রণে। আরও একটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে ওটস। মনের উপর যত ধরনের চাপ পড়ে, সব নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারে। ওটস খেলে শরীর-মন হালকা লাগে। ফলে কাজ করার ইচ্ছা বাড়ে।

পালং শাক

পালং শাকের মতো খাবার খুব কমই আছে। এই শাক পুষ্টিগুণে ভরপুর। নিয়মিত পালং শাক খেলে শরীরে ভিটামিন এবং ম্যাগনেশিয়ামের অভাব হবে না কখনো। তাতে রক্তের শর্করার মাত্রা যেমন নিয়ন্ত্রণে থাকবে, তেমনই পিএমএসের সমস্যাও কমবে। ফলে শরীর সতেজ থাকবে। কাজের ইচ্ছা বাড়বে।

টমেটো

সালাদ থেকে বিভিন্ন রান্না, নানা ভাবে ব্যবহার করা হয় টমেটো। কিন্তু এর গুণ সম্পর্কে যথেষ্ট সচেতনতা নেই। এই খাদ্যে লাইপোসিন থাকে। যা স্তন ক্যান্সার দূরে রাখতে পারে। হার্টের অসুখও কম হয় টমেটো খেলে। আর তার সঙ্গে বাড়ে ত্বকের ঔজ্জ্বল্য। নিজেকে সুন্দর দেখালে সবারই কাজেরও উৎসাহ বাড়ে। আর শরীর সতেজ থাকলে বাড়ে কাজের ক্ষমতা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.