শরীর আছে মনে তার রো-গ জ্বা-লা থা-কবেই । এবং তার জন্য নির্দিষ্ট চি-কিৎসা রয়েছে । কিন্তু চি-কিৎসা অবশ্যই সঠিক সময়ে করানো দরকার নইলে আমাদের করণীয় আর কিছু থাকে না ঠিক তেমনি যদি আপনার বুকে সর্দি কা-শি এর জন্য ক-ফ জ-মে থা-কে তাহলে সেটি অতি অবশ্যই

চি-কিৎসা করানো দরকার । কিন্তু ঘরোয়া কিছু পদ্ধতিতে আপনি বুকের কফ বের করে আনতে পারেন যদি আপনি এমন টা মনে করেন যে এই বুকে জমা কফ তেমন কোন প্র-ভাব ফে-লতে পারবেন আপনার শ-রীরের তাহলে আপনি সম্পূর্ণ ভুল ।

কারণ দীর্ঘদিন ধরে জমে থাকা কফ শ্বা-সত-ন্ত্রের রো-গের অন্যতম কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে । ডা-ক্তার-খানা যাওয়ার আগে বাড়িতে অতি অবশ্যই এই পদ্ধতি গু-লির মধ্যে যেকোনো একটি পদ্ধতি চেষ্টা করে দেখুন ফল মিলবে হাতেনাতে

১। লবণ ও জল :- লবণ এবং জল শ্বা-সত-ন্ত্রের বা বুকের মধ্যে জমে থাকা কফ দূর করতে অত্যন্ত উপকারী একটি রেমিডি বলতে পারেন । প্রথমে এক গ্লাস গরম জলের মধ্যে দুই থেকে তিন চামচ লবণ দিয়ে সেই জল দিয়ে যদি আপনি দিনে দুই থেকে তিনবার কুলকুচি করেন তাহলে কিন্তু বু-কে জ-মে থা-কা ক-ফ অনায়াসে বাইরে বেরিয়ে আসবে।

২। হলুদ: হলুদে থাকা কারকুমিন উপাদান বুক থেকে কফ, শ্লেষ্মা দূ’র করে বুকে ব্য’থা দ্রুত কমিয়ে দেয়। এর অ্যান্টি ইনফ্লামেনটরি উপাদান গলা ব্য’থা, বুকে ব্য’থা দূ’র ক’রতে সাহায্য করে। এক গ্লাস কুসুম গরম পানিতে এক চিমটি হলুদের গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। এটি দিয়ে প্রতিদিন কুলকুচি করুন।এছাড়া এক গ্লাস দুধে আধা চা চামচ হলুদের গুঁড়ো মিশিয়ে জ্বাল দিন। এর সাথে দুই চা চামচ মধু এবং এক চিমটি গোল মরিচের গুঁড়ো মেশান।

৩। লেবু এবং মধু :- এক গ্লাস গরম জলের মধ্যে যদি আপনি দুই থেকে তিন চামচ লেবুর মিশিয়ে দেন এবং তার মধ্যেই সেই জলে যদি মিশিয়ে দিন এক চামচ পরিমাণ মধু এবং সেই মধু এবং লেবু মিশ্রিত জল যদি পান করেন তাহলে এটি আপনার গ-লার ব্যা-কটেরিয়া দূর করতে সাহায্য করে । তার পাশাপাশি বুকের মধ্যে দীর্ঘ দিনের জমে থাকা ক-ফ বের করে আনতে সাহায্য করে । ডা-ক্তার-খানা যাওয়ার আগে অতি অবশ্যই ঘরোয়া পদ্ধতিতে আপনি একবার চেষ্টা করে দেখতে পারেন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *