করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়েছে দেশজুড়ে। প্রতিদিনই হাজার হাজার মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন করোনার এই নতুন আবহে। যার ফলে সারাদেশে চলছে লকডাউন। তবে ইন্টারনেটের এই যুগে লকডাউনেও দমিয়ে রাখতে পারেনি অফিসিয়াল কাজ। ঘরে বসে এখন অনলাইনেই কাজ করার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। তবে ঘরে বসে ঘণ্টার পর ঘণ্টা ল্যাপটপ কিংবা ডেস্কটপের সামনে বসে কর্মক্ষেত্রে পাঠিয়ে দিতে হচ্ছে যাবতীয় আপডেট। আর এখানেই হচ্ছে সমস্যা। লাগাতার ইলেকট্রনিক ডিভাইস চোখের সামনে খুলে রাখলে চোখের সমস্যা তৈরি হয়। চোখে চাপ পড়ে। চিকিৎসা জানাচ্ছেন, স্ক্রিন থেকে যে নীল আলো বেরিয়ে আসে তা চোখের ক্ষতি করে। ড্রাই আই সমস্যা শুধু চোখেই নয়, শরীরেও খারাপ প্রভাব ফেলে।

দীর্ঘ সময় ধরে স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে থাকার ফলে নানা রকম চোখের সমস্যা দেখা দিচ্ছে। যার মধ্যে আছে শুকনো চোখ, মাথা ব্যথা, চুলকানি, চোখের লালভাব। মূলত সারা দিন ধরে কম্পিউটারের সামনে বসে কাজ করার জন্য এগুলি হচ্ছে। চোখের সমস্যাগুলির মোকাবিলা করতে এবং প্রতিরোধ করার জন্য বিশেষজ্ঞরা কয়েকটি আই এক্সারসাইজ বা চোখের ব্যায়ামের পরামর্শ দিয়েছেন। দেখে নিন সেগুলি-

আই রোল
মাথা এবং মেরুদণ্ড সোজা রেখে রিল্যাক্স করে বসুন। মাথাটি না সরিয়ে আপনার আই বলগুলি একটি বৃত্তাকার গতিতে ক্লক ওয়াইজ ধীরে ধীরে সরান। একদন তাড়াহুড়ো করবেন না,এটি করার সময় মৃদুভাবে শ্বাস নিন। এই ভাবে তিনবার পুনরাবৃত্তি করুন। এরপর আপনার চোখ বন্ধ করুন, পোজ শিথিল করুন। একই ভাবে আবার অ্যান্টি ক্লক ওয়াইজ আই বল ঘোরান।

ফোকাস শিফটিং
আপনার সামনে একটি হাত প্রসারিত করুন এবং বুড়ো আঙুল সোজা রাখুন। ১৫ সেকেন্ডের জন্য আপনার এই বুড়ো আঙুলের উপরে ফোকাস করুন এবং আস্তে আস্তে এটি আপনার নাকের দিকে ফিরিয়ে আনুন। আপনি আর আঙুলটি পরিষ্কার ভাবে দেখতে পাবেন না। কিছুক্ষণ বিরতি নিয়ে খানিকক্ষণ শ্বাস নিন আবার একইভাবে এই অভ্যাস গড়ে তুলুন। অন্তত ১০ বার এটা করুন। এটি আপনার চোখকে ফোকাস করতে প্রশিক্ষণ দেবে। অনুশীলন করার সময় শান্তভাবে গভীর শ্বাস নিন।

ফিগার এইট
বসে মেঝের ১০ ফুট নীচে যে কোনও একটি বিন্দুতে ফোকাস করুন। শুধুমাত্র আপনার চোখ দিয়ে ৩০ সেকেন্ডের জন্য ৮-এর একটি কল্পিত আকার তৈরি করুন। এটি করার সময় আপনার মাথা বা দেহ সরাবেন না। এই চোখের ব্যায়ামটি ৩ বার করুন মাঝখানে একবার করে বিরতি নিয়ে।

২০-২০-২০ রুল
২০-২০-২০ নিয়ম অনুসরণ করুন। প্রতি ২০ মিনিটের পরে ল্যাপটপ থেকে বিরতি নিন। ২০ সেকেন্ডের জন্য ২০ ফুট দূরে দেখুন। আপনি যখন এটি করছেন, আপনার দৃষ্টি যেন কোনও স্থির বস্তুর দিকে থাকে।

পামিং
পামিং দিয়ে চোখের অনুশীলন শুরু এবং শেষ করুন। আপনার হাত ঘষুন এবং সেই গরম হাত চোখের উপরে রাখুন। আঙুলের ডগা থাকবে কপালের উপর। উষ্ণ হাতের তালু চোখের উপর আরামদায়ক অনুভূতি দেখা দেবে। যখনই কম্পিউটারের স্ক্রিন থেকে বিরতি নিতে চাইবেন, তখন এটি করে দেখতে পারেন। এই অনুশীলনগুলি আপনাকে ডিজিটাল স্ট্রেনের লক্ষণগুলি থেকে মুক্তি পেতে এবং চোখের স্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে সহায়তা করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *